শাওমি,রিয়েল মি সহ চায়না ব্রান্ডের ফোন থেকে ও ছড়াচ্ছে করোনা ভাইরাস দাবী গবেষকদের!





বর্তমান বিশ্বে করোনা ভাইরাস মহামারী আকার ধারন করেছে।

করোনা ভাইরাসে বিধ্বস্ত চীন। এছাড়াও বেশ কয়েকটি দেশ থেকেই করোনা ভাইরাস আক্রান্তের খবর পাওয়া গেছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এই ভাইরাসে চীনে মারা গেছে ১০৬ জন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ৪ হাজার ১৯৩ জন।

আসুন জেনে নিই করোনা ভাইরাস কী এবং কীভাবে ছড়ায়:-

কি ধরনের ভাইরাস এটি?

করোনাভাইরাস এক ধরনের ভাইরাস যার কারণে শ্বাসকষ্টসহ, ঠান্ডাজনিত নানা ধরনের শারিরীক সমস্যা দেখা দেয়। মিডল ইস্ট রেসপাইরেটরি সিনড্রম বা মার্স এবং সিভিয়ার একুউট রেসপাইরেটরি সিন্ড্রম বা সার্সও করোনাভাইরাস গোত্রের অন্তর্ভুক্ত।

কখন ধরা পড়ে

প্রথমে চীনে ২০০২ সালে বিড়াল থেকে মানবশরীরে এই ভাইরাস (সার্স) সংক্রমণের কথা জানা যায়। পরে ২০১২ সালে মধ্যপ্রাচ্যের সৌদি আরবের উটের শরীর থেকে মানবদেহে এ ধরনের ভাইরাসের (মার্স) সংক্রমণের বিষয়টিও ধরা পড়ে। বর্তমানে চীনে এটি নতুন রূপে দেখা দিয়েছে।

লক্ষণ কী?




করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরে সাধারণত যে লক্ষণগুলো ধরা পড়ে তা হল শ্বাসকষ্ট, জ্বর ও সর্দিকাশি। পাশাপাশি নিউমোনিয়া, কিডনিতে সমস্যাসহ নানা ধরনের জটিলতা তৈরি হয়।

মানুষ থেকে মানুষে কি সংক্রমিত হয়?

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে এলে এ ভাইরাসের সংক্রমণের সম্ভাবনা রয়েছে।

চিকিৎসা কী?

রোগটি একেবারেই নতুন হওয়ায় এখনও এর ভ্যাকসিন আবিষ্কার হয়নি। তবে এ ভাইরাস সংক্রমণের ফলে সৃষ্ট শারীরিক সমস্যায় সাধারণ চিকিৎসাই প্রদান করা হয়ে থাকে। সবচেয়ে জরুরি হল রোগীর জন্য নিরাপদ পরিবেশ বজায় রাখা।

কীভাবে নিজেকে রক্ষা করবেন?

এই ভাইরাস থেকে দূরে থাকতে আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে কম আসা, হাত পরিষ্কার রাখা, পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখা ও নিরাপদ খাবারের উপর জোর দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

কীভাবে নিরাপদ থাকবেন স্বাস্থ্যকর্মীরা?

রোগীর সেবায় নিয়োজিত থাকা স্বাস্থ্যকর্মীরা একটু বেশি ঝুঁকিতে থাকেন। আর তাই তাদেরকে যথাযথভাবে সংক্রমণনিরোধী বিষয়গুলো মেনে চলতে হবে।

সরকারের করণীয় কি?

এ রোগের বিস্তার ঠেকাতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বিভিন্ন দেশের সরকারকে নজরদারি বাড়ানোর কথা বলছে। এ ধরনের ভাইরাসে আক্রান্ত কোনও রোগীর সন্ধান পাওয়া মাত্র তাদেরকে জানাতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি জরুরি স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের জন্য প্রস্তুত থাকতে পরামর্শ দিয়েছে সংস্থাটি।

তবে গবেষকরা মনে করেছে মানুষ নয় এই ভাইরাসের বাহক হতে পারে মোবাইল ফোন ও। তাই চায়না ব্রান্ডের ফোন না কিনার পরমার্শ দিয়েছেন তারা



fahad

ট্রল করতে করতে যিনি মানুষ থেকে এখন পরিপূর্ণ ট্রলার!

You may also like...