একমণ ধান বেঁচে একটি বেনসন সিগারেট কিনতে পাচ্ছেন কৃষকেরা!

বাজেটে তামাকপণ্যে শুল্ককর বাড়ানোর মাধ্যমে ধূমপায়ী ও তামাকসেবীর সংখ্যা কমানোর লক্ষ্যে সিগারেটের দাম সর্বনিম্ন ৯ টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। আসন্ন বাজেটকে সামনে রেখে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালকে সম্প্রতি লেখা এক চিঠিতে এ প্রস্তাব দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

চিঠিতে আসন্ন বাজেট সামনে রেখে সিগারেটসহ সবধরনের তামাকজাত পণ্যের ওপর বিদ্যমান করকাঠামোতে আমূল পরিবর্তন আনার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এতে বাজারে চলমান প্রতিটি কম দামের সিগারেটে কমপক্ষে চার টাকা বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়। একই সঙ্গে বেনসন ও গোল্ডলিফসহ সমমানের ব্র্যান্ডের প্রতিটি সিগারেটের দাম বাড়বে অতিরিক্ত আট টাকা। বর্তমানে বাজারে প্রতি সিগারেটের সর্বনিম্ন দাম পাঁচ টাকা ও উচ্চস্তরে প্রতি সিগারেট ১২ টাকা খুচরা মূল্যে বিক্রি হচ্ছে। সে হিসাবে এক শলাকা বেনসনের দাম ২০ টাকা এবং গোল্ডলিফের দাম ১৬ টাকা হতে পারে। – জাগো বিডি

এদিকে সিগারেটের দাম বাড়লেও বাড়ে নি ধানের দাম। এ নিয়ে হতাশ কৃষক। সারাবছর কষ্ট করে চাষবাস করে মেলছে ধানের নায্য মূল্য।
বাংলাদেশের গ্রামে একজন কৃষি শ্রমিকের দৈনিক মজুরী একমণ ধানের দামের চেয়েও বেশি

এক মন ধান বিক্রি করলে মেলছে একটি বেনসন সিগারেট। কৃষকদের দেখার যেন কেউ নেই।

রাশেদ শেখ বলেন, “দাম আরো বাড়তো যদি ব্যবসায়ীরা নিশ্চয়তা পাইতো যে ছয় মাস দাম এভাবে থাকবে। তাহলে ধান অতিরিক্ত কিনলে বাজারে দাম বাড়তো। এখন আমরা কেউ ধান কিনতেছি না। কিনে কি হবে এখন এক মন ধান বেচলে মিলছে একটি বেনসন। আমাগো যতটুকু দরকার একদিনে ততটুকুই কিনতেছি।”

ধান চাষ করে কৃষকরা লাভ করতে পারছেন না, আবার চাষ না করলে বাজার থেকে বেশি দামে চাল কিনে খেতে হবে।

সেজন্য ধান চাষ নিয়ে কৃষকরা এখন উভয় সংকটে আছেন।

fahad

ট্রল করতে করতে যিনি মানুষ থেকে এখন পরিপূর্ণ ট্রলার!

You may also like...